তিন শর্তে দ্বিতীয় ও তৃতীয় বিয়ে করেন মামুনুল

হেফাজতে ইসলামের নেতা মামুনুল হককে জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে তার চুক্তিভিত্তিক দুই বিয়ের বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য পেয়েছে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে মামুনুল হক পুলিশকে জানিয়েছে তিনটি শর্তে চুক্তিভিত্তিক বিয়ে করেছেন তিনি।

শনিবার (২৪ এপ্রিল) রাজধানীর মিন্টু রোডের গোয়েন্দা কার্যালয়ে অনির্ধারিত এক ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম।

মামুনুল হকের বিয়ে প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তদন্তের স্বার্থে মামুনুলের ব্যক্তিগত বিষয় নিয়েও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদ ও তদন্তে আমরা তার প্রথম বিয়ের শরীয়ত বা আইনসম্মতভাবে কাবিন রয়েছে বলে নিশ্চিত হয়েছি।। তবে পরবর্তী দুই বিয়ে চুক্তিভিত্তিকভাবে করেন মামুনুল।

যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম বলেন, বিয়ের চুক্তির শর্তগুলো শুনে আমরা বিস্মিত হয়েছি। মানবিকতার দৃষ্টিতেও এগুলো কতটা গ্রহণযোগ্য, তা প্রশ্ন সাপেক্ষ। বিষয়গুলো আইনের পরিপন্থী বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্ত্রীকে মামুনুল হক বিয়ের জন্য তিনটি শর্ত দিয়েছেন। এগুলো মধ্যে রয়েছে- ওই নারীরা স্ত্রী হিসেবে থাকবেন, তবে মর্যাদা পাবেন না। স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক থাকবে, তবে সম্পদের ভাগ পাবেন না এবং কোনও দাবি দাওয়া বা সন্তান ধারণ করতে পারবেন না।

ব্রিফিংয়ে আরও জানানো হয, অধিকাংশ হেফাজত নেতা মনে করেন, হেফাজত একমাত্র প্লাটফর্ম, যেটা ক্ষমতায় যাওয়ার সিঁড়ি হিসেবে কাজে লাগতে পারে। এ জন্য তারা মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের ঢাল হিসেবে ব্যবহার করে, কার্যক্রম চালাতো।

হেফাজতের অর্থের উৎস বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বাইরে থেকে অর্থ আসার তথ্য পাওয়া যাচ্ছে। আমরা বিষয়গুলো খতিয়ে দেখছি। মাদ্রাসার গরিব ছাত্রদের ব্যবহার করে হেফাজত নেতারা বিপুল পরিমাণ বিত্ত-বৈভব ও গাড়ি-বাড়ি করেছে। তদন্তে এসব বিষয় খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম।

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!