রেকর্ডের শীর্ষে অপূর্ব, সাফল্যের মুকুটে নতুন পালক

নিন্দুকের নিন্দাকে সফলতায় বদলে দিয়ে প্রথম বাংলাদেশী অভিনেতা হিসেবে মাইলফলক অর্জন করলেন ছোট পর্দার সুপারস্টার জিয়াউল ফারুক অপূর্ব। তিনিই প্রথম অভিনেতা যার ২০টি নাটক কোটি ভিউয়ের মাইলফলক স্পর্শ করেছে।

শুধু তাই নয়, অপূর্বই বাংলাদেশের প্রথম অভিনেতা যার নাটক ‘বড় ছেলে’ ইউটিউব ভিউয়ের দিক থেকে প্রথম কোটির মাইলফলক ছুঁয়েছিলো এবং নাটক ইন্ডাস্ট্রিতে রেকর্ড গড়েছিলো। বাংলা নাটক ইন্ডাস্ট্রির মোড় ঘুরিয়ে দেওয়া এ নায়কই ১ থেকে শুরু করে টানা ২০টি নাটকে কোটি ভিউ ছুঁয়েছে। প্রথম ৫টি, ১০টি এবং ১৫টি নাটকের কোটি ভিউয়ের রেকর্ডও ছিলো ‘রোমান্স কিং’ খ্যাত এ অভিনেতার দখলে। সে ধারাবাহিকতায় কোটিতে বিশ ছুঁয়ে সাফল্যের মুকুটে নতুন পালকে যোগ করেছেন।

কোটি ভিউ পাওয়া সেই ২০ নাটকের তালিকার মধ্যে রয়েছে বড় ছেলে, অবুঝ দিনের গল্প, ব্যাচ ২৭- দ্যা লাস্ট পেজ, ভালো থেকো তুমিও, দ্য পারফেক্ট ম্যান, ভালোবাসি তুমি আমি, মিস্টার এন্ড মিসেস চাপাবাজ, বিনি সুতোর টান, এক্সচেঞ্জ, যদি তুমি জানতে, গোলাপী কামিজ, হঠাৎ দেখা, ফার্স্ট লাভ, প্রেমছবি, ক্যান্ডি ক্রাশ, শেষ পর্যন্ত, জীবন, শুধু তুমি, পার্টনার, তোমার অপেক্ষায় ইত্যাদি।

এছাড়াও এখন পর্যন্ত জিয়াউল ফারুক অপূর্ব অভিনীত মোট ৯২টি নাটক ৫ মিলিয়নেরও বেশি ভিউ হয়েছে ইউটিউবে, যা বাংলাদেশী অভিনেতাদের মধ্যে প্রথম ও সর্বোচ্চ।

এমন সাফল্যে উচ্ছ্বসিত জিয়াউল ফারুক অপূর্ব বলেন, এ কৃতিত্ব আসলে প্রতিটা টিমের সঙ্গে যুক্ত থাকা সকলের। এ কৃতিত্ব দর্শকদের। তারা এতোটা সাপোর্ট ও ভালোবাসা না দিলে হয়তো আমি আজকে এ অবস্থানে আসতে পারতাম না। এরজন্য আমার সকল ভক্ত অনুরাগী ও দর্শকদের জন্য মন থেকে ভালোবাসা জানাতে চাই। ধন্যবাদ জানাতে চাই আমার সহকর্মী ও পরিচালকদের।

তিনি আরও বলেন, আমি সবসময়ই চেষ্টা করেছি আমার দর্শকদেরকে ভালো কাজ উপহার দেওয়ার। একটা কাজ করার পেছনে অনেক অনেক শ্রম, সাধনা জড়িত থাকে। আর সেই কাজটা যখন দর্শকরা গ্রহণ করে, ভালোবাসা প্রকাশ করতে তখন সকল কষ্টই দূর হয়ে যায়। আমরা অভিনয়শিল্পী, দর্শকদের জন্যই কাজ করি। তাদের এ সাপোর্টটাই আমাদেরকে সবসময় ভালো কাজ করার অনুপ্রেরণা দেয়।

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!