ফিরছেন সাকিব, অধিনায়কত্বে পরিবর্তন!

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) এবারের আসরে সুবিধাজনক অবস্থানে নেই সাকিব আল হাসানের কলকাতা নাইট রাইডার্স। এখন পর্যন্ত নিজেদের ৭ ম্যাচের মধ্যে ৫টিতেই হেরে বসেছে তারা।

সর্বশেষ দিল্লি ক্যাপিটালসের কাছে ল্যাজেগোবরে অবস্থা দেখা গিয়েছে নাইটদের।দিল্লি ক্যাপিটালসের কাছে বিশাল ব্যবধানে হারের পর দলে পরিবর্তনের আভাস দিয়েছেন অধিনায়ক ইয়ন মরগান। কলকাতার হয়ে প্রথম ৩ ম্যাচে মাঠে নেমেছিলেন সাকিব। ১ ম্যাচে ব্যাট হাতে ২৬ রান করলেও বাকি ম্যাচগুলোতে সাকিব খুব বেশি সুবিধা করতে পারেননি।

অন্যদিকে বল হাতে কম খরুচে ছিলেন সাকিব। তবে এরপরও তাকে একাদশ থেকে ছাঁটাই করে কলকাতা টিম ম্যানেজমেন্ট। সাকিবকে একাদশ থেকে বাদ দিয়ে দলে নেয়া হয় সুনীল নারাইনকে। তবে ক্যারিবিয়ান এই অলরাউন্ডার ছিলেন ব্যর্থতার চূড়ান্ত সীমানায়।

চার ম্যাচে এখন পর্যন্ত কোন ম্যাচেই নিজের রান নিয়ে যেতে পারেননি দুই অঙ্কের ঘরে। সর্বোচ্চ রান ৬ এর সাথে তার মোট রান মাত্র ১০। টপ অর্ডার কিংবা মিডল অর্ডার কোনো জায়গাতেই সুবিধা করতে পারেছেন না তিনি। এমন পারফরম্যান্সের পর নারাইনকে একাদশ থেকে ছাঁটাই করতে যাচ্ছে কলকাতা।

দিল্লি ক্যাপিটালসের বিপক্ষে ম্যাচ হারের পর নাইট অধিনায়ক ইয়ন মরগানের কথায় মিলে পরিবর্তনের আভাস। তিনি জানিয়েছেন দলে প্রতিভাবান অন্য যে ক্রিকেটার আছে তাদেরকে নিয়েই পরবর্তী ম্যাচে ঘুরে দাঁড়াতে চায় তার দল। দলে চার বিদেশির মধ্যে অধিনায়ক ইয়ন মরগানের পারফরম্যান্স নিয়েও অবশ্য সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে।

সাকিব আল হাসানকে অধিনায়ক করার দাবি উঠেছিল বেশ আগেই। কেননা মরগান ব্যাট হাতে ব্যর্থতার পরিচয় দেয়ার পাশাপাশি অধিনায়ক হিসেবেও মাঠে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে ব্যর্থ হয়েছেন। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তিন ফরম্যাটেই অধিনায়কত্ব করার অভিজ্ঞতা রয়েছে সাকিবের।

এছাড়া দলটিতে অধিনায়কত্ব করার মত অভিজ্ঞ তেমন ক্রিকেটারও নেই। এর আগে দীনেশ কার্তিককে অধিনায়ক করা হলেও শেষ পর্যন্ত টুর্নামেন্টের মাঝপথেই অধিনায়ক থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছিল তাকে। ফলে সাকিবের হাতে অধিনায়কত্ব তুলে দিলে অবাক হবার কিছুই থাকবে না।

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!