মানুষটি আমাদের মাঝে নেই- এটা ভাবতেই পারি না: শাবানা

অ’ভিনয় জগতের উজ্জ্বল নক্ষ’ত্র নায়করাজ রাজ্জাক। ২০১৭ সালের এই দিনে বি’দায় নেন তিনি। এই মহানায়ককে নিয়ে স্মৃ’’তিচারণ ক’রেছেন বরেণ্য দুই অ’ভিনেত্রী শাবানা ও ববিতা অ’ভিনয় থেকে শুরু করে ব্য’ক্তি’গ’ত বি’পদ-আ’পদ, পারি’বা’রিক আয়ো’জন- সবকিছুতেই তার অংশ’গ্রহণ ছিল।

সেই প্রিয় মানু’ষটি আমা’দের মাঝে নেই- এটা ভাব’তেই পারি না। এখনও চোখে ভাসে ২০১৫ সালের জাতীয় চল’চ্চিত্র পুর’স্কা’র প্রদান অনুষ্ঠা’নের কথা। আমাকে দেখে’ই তার মু’খের হাসি প্র’সারি’ত হয়ে উ’ঠে’ছিল।ঠিক যেন বহু’দি’ন পর পরি’বারে’র কেউ ফি’রে এসেছে- এমন ছিল তার চো’খমু’খের ভাষা। অনেকদি”ন প্রবা’সে থাকা’র কারণে আমা’র স’ঙ্গে দেখা হয়নি। যে জন্য প্রি’য়শি”ল্পী, ভাই ও ব’ন্ধু নায়ক’রা’জে’র দেখা পেয়ে আমিও ভীষণ খু’শি হ’য়েছি’লাম।

আ’মাকে দেখা’মাত্রই তার বাসায় দাওয়া’ত করে বসেছি’লেন। বলেছিলেন, ‘এবার কিন্তু বা’সায় না গে’লেই নয়।’ আমিও ব’লেছিলাম, ‘অল্প সম’য়ের জন্য দেশে এসেছি, তার পরও ‘চে’’ষ্টা ক’ব বাসা’য় যা’ওয়ার।কিন্তু চে’ষ্টা ক’রেও তার বাসা’য় শে’ষমে’শ যাও’য়া হয়ে ওঠেনি। তখনও যদি জানতাম, দেশী’য় চল’চ্চি’ত্রের এই দি’কপা’লের স’ঙ্গে আর দেখা হবে না,প্রা”ণখু’লে গল্প-আ’ড্ডায় মেতে ওঠার সু’যোগও হারিয়ে যাব’ে, তাহলে যেভাবেই হোক একবা’রের জন্য হলেও দেখা ক’রতে যেতাম। এখন এটা ভেবে মন খা’রাপ হয়। তবুও বাস্ত’ব মেনে নিয়ে নায়ক’রাজ পর’পা’রে শা’ন্তি’তে’ থাকুন- এই প্রা’র্থনা করি।

আমি চির’কা’ল গ’র্বের স’ঙ্গে বলেছি, রাজ্জাক ভাই আমা’র অ’তি আপনজ’ন। আমা’র অ’ভিনয় জীবনের অ’ভিভাব’ক। এ জন্য কা’জে’র বি’ষয়ে তার প’রাম’র্শ সব’সময় মেনে চলেছি তার নির্দে’শ মা’নতে গি’য়ে আ’বিস্কা’র করেছি, আমা’দের মধ্যে অ’নেক মিল আছে। পছন্দ-অ’পছ’ন্দে’র বি’ষ’য়ে আমা’দের চি’ন্তা’ভাবনা ছিল প্রায় এ’কই রকম। আরেকটা মিল হলো, আম’রা দু’জ’নই ছোট চরি’ত্র দিয়ে চলচ্চি’ত্রে যাত্রা শুরু করে’ছি’লাম। নিষ্ঠার স’ঙ্গে কাজ করে দর্শ’কের সা’ড়া’ পেতেও খুব বেশি সময় লাগে’নি।

তার ছত্র’ছা’য়ায় থেকে নিজে’কে গড়েছি বলেই হয়তো এতটা পথ পাড়ি ‘দিতে পে’রেছি। আমা’র মতো অ’নেকে তার স্নেহ-ছা’য়ায় বেড়ে উ’ঠেছেন। জে’নে’ছেন, পেশা”দার শিল্পী ‘হতে হলে কী’ভা’বে নি’জেকে গড়ে তুল’তে হয়। এ জন্য রা’জ্জাক ভাই’কে আমি অ’ভিনয়ে’র একটি অন’ন্য প্রতি’ষ্ঠান বলে থাকি। আরও অনেক গু’’ণ ছিল রা’জ্জাক ভা’ইয়ে’র, যা বলে শে’ষ করা যাব’ে না।

সত্যিই তার তু’লনা চলে কেবল তার স’ঙ্গেই। যে কারণে তার শূ’ন্যতা কখনও পূ’রণ হবে না। তাই তো শ’ঙ্কা রাজা’হীন রাজ্য নিয়ে। আজ নায়’করা’জ আমা’দের মা’ঝে’ নেই! কে শেখা’বেন দীর্ঘ’পথ পা’ড়ি দেওয়া’র মন্ত্র? এই প্র’শ্নের উ’ত্তর দেও’য়া কারও পক্ষেই সহ’জ নয়। তাই আ’মা’র চাওয়া কেবল একটিই- কিংব’দন্তি এই অ’ভি’নেতা’র দেখা’নো পথ ধ’রেই যেন আম’রা চলি। সূত্র: সমকাল

Related Articles

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!