১৬ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে ইউজিসির সতর্ক বার্তা

দেশের ১৬টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে শিক্ষার্থীদের সতর্ক করে দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। মঙ্গলবার অ'ভিভাবক বা জনসাধারণের সচেতনার্থে ইউজিসি ওয়েবসাইটে ওইসব বিশ্ববিদ্যালয়ের নামের পাশে লাল তারকা চিহ্ন যু'ক্ত করা হয়েছে।

অননুমোদিত ভবন বা ক্যাম্পাসে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা, প্রোগ্রাম, মা'মলাসহ বিভিন্ন ধরনের সমস্যা থাকায় এসব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে নিষেধ করেছে ইউজিসি। ভর্তি মৌসুম সামনে রেখে এই হালনাগাদ করা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

ইউজিসি সূত্রে জানা গেছে, যেসব বিশ্ববিদ্যালয়ের নামের পাশে লাল তারকা চিহ্ন দেয়া হয়েছে সেগুলোর বি'রুদ্ধে নানা অ'ভিযোগ রয়েছে। তাই শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয় স'ম্পর্কে খোঁজ-খবর নিয়ে ভর্তি হতে হবে। পরে কোনো সমস্যায় পড়লে দায়ভা'র নেবে না ইউজিসি। দেশে বর্তমানে ১০৭টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদন আছে।

ইউজিসির (বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়) সদস্য অধ্যাপক ড. বিশ্বজিৎ চন্দ বলেন, যেসব বিশ্ববিদ্যালয়ে সমস্যা রয়েছে তা সম্প্রতি আপডেট করে ইউজিসির ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। এসব বিশ্ববিদ্যালয়ে অননুমোদিত ক্যাম্পাস/প্রোগ্রামসহ বিভিন্ন ধরনের সমস্যা রয়েছে।

অ'বৈধ ভবনে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হল
ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভা'র্সিটি, ইউনিভা'র্সিটি অব সাউথ এশিয়া, স্ট্যামফোর্ড ইউনিভা'র্সিটি বাংলাদেশ, ভিক্টোরিয়া ইউনিভা'র্সিটি অব বাংলাদেশ, উত্তরা ইউনিভা'র্সিটি, ইউনিভা'র্সিটি অব ডেভেলপমেন্ট অল্টারনেটিভ, সাউথ ইস্ট ইউনিভা'র্সিটি এবং নর্দান ইউনিভা'র্সিটি।

তিন বিশ্ববিদ্যালয়ে অননুমোদিত প্রোগ্রাম
নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় একটি প্রোগ্রামের অনুমোদন নিয়ে সেই প্রোগ্রামের আড়ালে আরো ১০টি প্রোগ্রাম পরিচালনা করছে, যা সম্পূর্ণ অ'বৈধ বলে জানিয়েছে ইউজিসি।

অননুমোদিত প্রোগ্রামগুলো হল- বিবিএ ইন জেনারেল, বিবিএ ইন ফিন্যান্স, বিবিএ ইন এইচআরএম, বিবিএ ইন ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস, বিবিএ ইন মা'র্কেটিং, বিবিএ ইন ম্যানেজমেন্ট ইনফরমেশন সিস্টেম, বিবিএ ইন অ্যাকাউন্টিং, বিবিএ ইন ইকোনমিক্স, বিবিএ ইন এন্টারপ্রেনিউরশিপ এবং বিবিএ ইন সাপ্লাই চেইন ম্যানেজমেন্ট।

গণবিশ্ববিদ্যালয়ে অননুমোদিতভাবে পরিচালিত বিবিএ, পরিবেশ বিজ্ঞান, এমবিবিএস, বিডিএস এবং স্কাইকোথেরাপি প্রোগ্রামগুলো ২০১৯ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি থেকে পরবর্তী ৬ মাসের স্থগিতাদেশ দেয় হাই'কোর্ট ডিভিশন। এ মেয়াদ শেষ হওয়ার পর বিশ্ববিদ্যালয়টি এসব প্রোগ্রামে শিক্ষার্থী ভর্তি কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে।এছাড়া চট্টগ্রামের আন্তর্জাতিক ইস'লামী বিশ্ববিদ্যালয়ে মাস্টার্স ইন কোরআনিক সায়েন্স অ্যান্ড ইস'লামিক স্টাডিজ প্রোগ্রামটি অননুমোদিতভাবে পরিচালনা করা হচ্ছে।

মালিকানা নিয়ে দ্বন্দ্ব তিন বিশ্ববিদ্যালয়ে
ব্রিটেনিয়া ইউনিভা'র্সিটি, সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভা'র্সিটি ও কুইন্স ইউনিভা'র্সিটি।

অনুমোদিত কোনো ঠিকানা নেই ইবাইস ইউনিভা'র্সিটির
একইসঙ্গে দুইজন মালিক ইবাইস ইউনিভা'র্সিটির শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এরমধ্যে একটি গ্রুপ ধানমন্ডি, অন্য গ্রুপ উত্তরায়। এক সময় কোর্টের রায়ে ধানমন্ডি বাড়ি নম্বর-২১/এ, সড়ক নম্বর-১৬ (পুরাতন-২৭), ধানমন্ডি, ঢাকা-১২০৯ ঠিকানাটি কমিশনের ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়েছিল। ওই স্থগিতাদেশের কার্যকারিতা ভ্যাকেট হয়ে যাওয়ায় ভা'র্সিটিটির ওই ঠিকানা কমিশনের ওয়েবসাইট থেকে বাতিল করা হয়। এ কারণে বর্তমানে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদিত কোনো ঠিকানা নেই।

শিক্ষা কার্যক্রম পুনরায় শুরুর অনুমতি পায়নি দি ইউনিভা'র্সিটি অব কুমিল্লা
দি ইউনিভা'র্সিটি অব কুমিল্লার ঠিকানা এবং প্রোগ্রামগুলো ইউজিসির ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়েছে। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিষয়ে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ২০১০ অনুযায়ী পরবর্তী নির্দেশনা চেয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পত্র পাঠানো হয়েছে। কমিশন থেকে শিক্ষা কার্যক্রম পুনরায় শুরুর অনুমতি এখন পর্যন্ত দেয়া হয়নি।

ছয়টি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার জন্য অনুমতি পায়নি
সরকার কর্তৃক নতুন করে অনুমোদন দেয়া ছয়টি বিশ্ববিদ্যালয় এখনও শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার জন্য অনুমতি পায়নি। এগুলোর মধ্যে রয়েছে- রূপায়ন এ কে এম শামসুজ্জাহা বিশ্ববিদ্যালয়, আহসানিয়া মিশন বিজ্ঞান ও প্রযু'ক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, খান বাহাদুর আহছানউল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, শাহ মখদুম ম্যানেজমেন্ট ইউনিভা'র্সিটি, মাইক্রোল্যান্ড ইউনিভা'র্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি এবং আর টি এম আল কবির টেকনিক্যাল ইউনিভা'র্সিটি।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!