চু'রির অ'ভিযোগে হাত-পা বেঁ,ধে লা,ঠিপে'টা, কা'ন্না,য় ছটফট করছিল শিহাব

নওগাঁর মহাদেবপুরে স্মা'র্টফোন চু'রির অ'ভিযোগে শিহাব হোসেন (১৪) নামে এক কি'শোরকে হাত-পা বেঁধে নি'র্যাতনের অ'ভিযোহগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার (৩০ জুলাই) সকালে উপজে'লার বাগাচারা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

শিহাবকে মা'রধরের ঘটনায় ওই এলাকায় নির্মাণাধীন একটি অটোগ্যাস ফিলিং স্টেশনের নৈশ প্রহরীকে আ'ট'ক করেছে পু'লিশ। আ'ট'ক ব্যক্তির নাম বকুল হোসেন (৫৫)। তিনি উপজে'লার চৌমাশিয়া গ্রামের বাসিন্দা। নি'র্যাতনের শিকার শিহাব বাগাচারা গ্রামের খোরশেদ আলমের ছে'লে।নি'র্যাতনের শিকার কি'শোরের পরিবার,স্থানীয় বাসিন্দা ও মহাদেবপুর থা'না পু'লিশ সূত্রে জানা যায়,

সকাল ৭টার দিকে নওগাঁ-রাজশাহী আঞ্চলিক মহাসড়কের পাশে উপজে'লার বাগাচারা এলাকায় নির্মাণাধীন একটি অটোগ্যাস ফিলিং স্টেশন এলাকায় যায় শিহাব নামের শি'শুটি। এ সময় মোবাইল ফোন চু'রির অ'ভিযোগ তুলে ফিলিং স্টেশনের নৈশপ্রহরী বকুল হোসেন ও কয়েকজন নির্মাণ শ্রমিক শি'শুটিকে হাত-পা বেঁধে লা'ঠি দিয়ে মা'রধর করে। এরপর শিহাবকে হাত-পা বাঁ'ধা অবস্থায় নৈশপ্রহরী বকুল তার কক্ষে আ'ট'কে রাখে।

পরে ঘটনা জানাজানি হলে শি'শুটির পরিবারের লোকজন ও স্থানীয় বাসিন্দারা এসে শি'শুটিকে সেখান থেকে উ'দ্ধার করে। লোকজন আসার আগেই নৈশপ্রহরী বকুল হোসেন সেখান থেকে পালিয়ে যায়। নির্যাতিত শিহাবের বাবা খোরশেদ আলম বলেন, ‘আমা'র ছে'লে শিহাবকে হাত-পা বেঁধে মা'রধরের ঘটনার ভিডিও এলাকার বিভিন্ন মানুষের মোবাইলে ছড়িয়ে পড়েছে।

ভিডিওতে দেখতে পাইছি, ছে'লেক হাত-পা বেঁধে কিভাবে মা'রধর করা হয়েছে। আমি এ নি'র্যাতনের বিচার চাই। মহাদেবপুর থা'নার ওসি (ত'দন্ত) আবুল কালাম আজাদ৷ গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, এ ঘটনায় ইতোমধ্যে মূল অ'ভিযু'ক্ত ব্যক্তিকে আ'ট'ক করা হয়েছে। ঘটনার সাথে জ'ড়িত অন্যদেরও আ'ট'কের চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় থা'নায় মা'মলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!