তিন কারণে বিশ্বকাপে খেলবেন না তামিম

আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন বাংলাদেশ দলের অন্যতম সেরা ওপেনার তামিম ইকবাল। বিশ্বকাপ থেকে নিজেকে সরিয়ে নেওয়ার পেছনে তিনটি কারণ দেখিয়েছেন তামিম।

বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এক ভিডিওবার্তায় এ ঘোষণা দেন তামিম।তিনি বলেন, আসসালামু আলাইকুম সবাইকে। আশা করি সবাই ভালো আছেন। ছোট একটা ঘোষণা ছিল। আমি একটু আগেই বিসিবি সভাপতি (নাজমুল হাসান পাপন) ও প্রধান নির্বাচকের (মিনহাজুল আবেদীন নান্নু) সঙ্গে কথা বলেছি। যেটা এখন আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করতে চাই। আমা'র মনে হয় না আমা'র টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দলে থাকা উচিত। তাই বিশ্বকাপ থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছি।

তামিম বলেন, আমি দুই-তিনটি বিষয় ভেবে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমা'র মতে গেম টাইম অনেক বড় বিষয়। আমি অনেকদিন ধরেই এই ফরম্যাটে খেলছি না। দ্বিতীয়টা হলো ইন'জুরি। তবে ইন'জুরিটা বড় বিষয় নয়। আশা করি বিশ্বকাপের আগেই ঠিক হয়ে যাবে।

তিনি বলেন, আমাকে সবচেয়ে বেশি যে বিষয়টা ভাবাচ্ছে সেটা হলো আমি সর্বশেষ ১৫-১৬টা টি-টোয়েন্টি খেলিনি। আমা'র জায়গায় যারা খেলেছিল আমা'র মনে হয় এটা তাদের প্রতি অবিচার হবে যদি আমি হুট করে তাদের জায়গা নিয়ে নেই।

দেশসেরা এই ওপেনার বলেন, হয়তো আমি বিশ্বকাপ দলে থাকতাম। কিন্তু আমা'র মনে হয় না এটা ন্যায়বিচার হতো। এই সিরিজ ও বিশ্বকাপের জন্য বাংলাদেশকে শুভকামনা জানাই। আমাকে বিশ্বকাপে দেখবেন না আপনারা। তবে আমি এই ফরম্যাট থেকে অবসর নিচ্ছি না। বিশ্বকাপে আমা'র খেলা হবে। আমি মনে করি এটা সঠিক সিদ্ধান্ত।

তিনি আরও বলেন, আমি মনে করি দলে যারা তরুণ ওপেনার আছে তাদের সুযোগ পাওয়া উচিত। কারণ তারা সর্বশেষ ১৫-১৬ ম্যাচ খেলেছে। তাদের প্রস্তুতিও ভালো। আমি মনে করি তারা দলকে ভালো কিছু উপহার দিতে পারবে।

উল্লেখ্য, তামিম সর্বশেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন ২০২০ সালের মা'র্চে। পরে চলতি বছরের শুরুর দিকে নিউজিল্যান্ড সফরে ডাক পেলেও পারিবারিক কারণে খেলেননি তামিম। এরপর জিম্বাবুয়ে সিরিজে ইন'জুরির কারণে ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঘরের মাঠেও খেলা হয়নি তার। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে চলতি সিরিজেও নেই তামিম।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!