শুরুর আগেই নতুন ঝামেলায় বিপিএল

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) ও পা'কিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) আসন্ন আসর প্রায় একই সময়ে শুরু হচ্ছে। তবে পিএসএলের ড্রাফট হয়ে গেছে দুই দিন আগে।

আর তাতেই বিপাকে বিপিএলের ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো। বিশেষ করে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স তো বিদেশী ক্রিকেটার নিয়ে নিজেদের পরিকল্পনাই বদলাতে হচ্ছে।
বিসিবি এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে জানায়নি কোন ৬ টি প্রতিষ্ঠান এবারের বিপিএলের ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকানা পাচ্ছে। কিন্তু ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো ইতোমধ্যে সবুজ সংকেত পেয়ে দলও গুছাতে শুরু করেছে। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের মালিকানা পাওয়া প্রতিষ্ঠান আখতার গ্রুপ গত আসরে তাদের হয়ে খেলে যাওয়া বিদেশীদের নজরে রেখেছিলো।

কিন্তু পিএসএল ড্রাফটে বিক্রি হয়ে যায় তাদের বেশিরভাগ পুরোনো ক্রিকেটার। সাথে নতুন করে যাদের নিয়ে বিকল্প ভেবেছিলেন তারাও বিক্রি হন। আর তাতেই পুরো পরিকল্পনা নতুন করে সাজাতে হচ্ছে তাদের।দলটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক রিফাতুজ্জামান(১৪ ডিসেম্বর) তার কার্যালয়ে উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন,

‘আমাদের যেসব প্লেয়ার ভাবনায় ছিলো তারা পিএসএলের ড্রাফটে দল পেয়েছে। এখন আম'রা নতুন করে প্ল্যান করেছি। বিসিবি থেকে ফরমাল একটা ক্লিয়ারেন্স পাবো আজ কালের মধ্যে তখন এটা নিয়ে এগোতে পারবো। এখনো কোনো ক্রিকেটারের সাথে চূড়ান্ত কিছু করতে পারিনি।’

‘আম'রা অনেকগুলো নাম নির্বাচন করেছিলাম, কিন্তু মজার বিষয় হলো আম'রা ৬-৭ জনকে ভেবেছিলাম। সেখান থেকে ৪ জন পিএসএলে বিক্রি হয়েছে। তো ঐ জায়গাগুলোতে বিকল্প ভাবতে হচ্ছে। আজকে একটা মিটিং আছে এরপর একটা জায়গায় যেতে পারবো। আরও ২-৩ দিন সময় লাগবে।’

‘আম'রা ওপেনিংয়ে একজনকে ভেবেছিলাম সে পিএসএলে দল পেয়েছে, তার বিকল্প হিসেবে একজনকে ভেবেছি সেও দল পেয়ে গেছে। তারও একজন বিকল্প ঠিক করে রেখেছিলাম দুর্ভাগ্যজনক ভাবে সেও বিক্রি হয়ে যায়। ব্যাপারটা মজা লাগছে যে অনেকগুলো সিলেকটেড প্লেয়ার পিএসএলে দল পেয়ে গেছে।

মূলত গতকাল (পিএসএল ড্রাফটের পর) আম'রা কাজ শুরু করেছি।’ উল্লেখ্য, আগামী জানুয়ারির শেষ দিকে মাঠে গড়াচ্ছে বিপিএল। আর তার আগেই শুরু হচ্ছে পিএসএল। বিপিএলের ড্রাফট অনুষ্ঠিত হতে পারে চলতি মাসের শেষদিকে।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!