ডিপজল-কন্যার ৬ কেজি ওজনের নেকলেসের মূল্য কত?

সম্প্রতি ভাই সাদ্দাম সৌমিক অমির গায়ে হলুদে মনোয়ার হোসের ডিপজলের একমাত্র মেয়ে ওলিজা মনোয়ার সাদা শাড়িতে ভারি মুক্তার নেকলেস পরেছেন।

তার গলায় শোভা বাড়ানো সেই নেকলেসটি তাক লাগিয়েছে অতিথিদের।সাধারণত এ ধরনের নেকলেস দেখা যায় না। এ বিষয়ে জানতে চাইলে ওলিজা গণমাধ্যমকে জানান, থাইল্যান্ডের

মুক্তা দিয়ে নেকলেসটি তিনি নিজেই তৈরি করেছেন। এতে পাঁচ ধরনের ৭-৮টি সারি রয়েছে। প্রত্যেক সারিতে ৬০-এর অধিক মুক্তা রয়েছে। ওজন ৬ কেজি। তৈরি করতে পাঁচদিন সময় লেগেছে ওলিজার। মুক্তাগুলো থাইল্যান্ড থেকে আনা হয়েছে এবং এর স্ট্রিং-এ অস্ট্রেলিয়ান স্বর্ণ ব্যবহার করা হয়েছে।ওলিজা আরো জানান, নেকলেসে মোট ১

হাজার পিসের অধিক মুক্তা ব্যবহার করা হয়েছে। সব মিলিয়ে যার মূল্য ৬ লাখ টাকা।২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে ছিল ডিপজলের বড় ছেলে সাদ্দাম সৌমিক অমির বিয়ে। করোনা পরিস্থিতির জন্য দুই বছর অপেক্ষা করে এবার জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে প্রায় ১০ হাজার অতিথি নিয়ে অনুষ্ঠান করে পুত্রবধূকে ঘরে তুলবেন বলে গণমাধ্যমকে জানান ডিপজল। গত ৫ জুন ছিল হলুদ সন্ধ্যা। এই অনুষ্ঠানে ওলিজার লহরের মুক্তার নেকলেস সবার নজর কাড়ে।

আরও পড়ুন= ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপ শুরু হতে বাকী আর মাত্র কয়েক মাস। আসন্ন এই আসর ঘিরে এরই মধ্যে শুরু হয়ে গেছে উন্মাদনা। আর সেটি বাড়িয়ে দিতে আজ (বুধবার) বাংলাদেশে এসেছে ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপের ট্রফি। যা দেখার সুযোগ পেতে পারেন অনেকেই।সোনার এই ট্রফি আগমন উপলক্ষে ঢাকায় জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজন করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। তার মধ্যে থাকছে ফিফার কমার্শিয়াল পার্টনার কোকাকোলার আয়োজনে একটি কনসার্টও।ট্রফি আসা এবং এ উপলক্ষে নানা

আয়োজনের বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন বাফুফে সাধারণ সম্পাদক আবু নাঈম সোহাগ।বেলা ১১টার দিকে চার্টার্ড ফ্লাইটযোগে বিশ্বকাপের ট্রফি ঢাকায় এসে পৌঁছায়। ট্রফির সঙ্গে আছে ফিফার সাত সদস্যের প্রতিনিধি দল। তাদের মধ্যে আছেন ১৯৯৮ সালে ফ্রান্সের বিশ্বকাপ জেতা লিজেন্ডারি মিডফিল্ডার ক্রিশ্চিয়ান কারেম্বু।বিমানবন্দরে বিশ্বকাপ ট্রফি বরণ করেন বাফুফে সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনসহ অন্য কর্মকর্তারা। প্রথম দিন ট্রফি নিয়ে বাফুফের তিনটি আনুষ্ঠানিকতা রয়েছে।এদিন বিমানবন্দর থেকে প্রথমে হোটেল রেডিসনে ট্রফি নিয়ে যাওয়া হবে।

এরপর বিকেল চারটায় ট্রফি নিয়ে যাওয়া হবে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের বাসভবনে। রাষ্ট্রপতির বাসভবনে কার্যক্রম শেষে ট্রফি নেয়া হবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাসভবন গণভবনে।রাতে ট্রফি আগমন উপলক্ষে একটি নৈশভোজেরও আয়োজন করেছে বাফুফে।আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ট্রফির সঙ্গে হোটেল রেডিসনে ছবি তোলার সুযোগ পাবেন ফুটবল সংশ্লিষ্টরা। এসময় ফুটবলের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি, মিডিয়াকর্মীরা এই ট্রফির সঙ্গে ছবি তোলার সুযোগ পাবেন।এরপর বিকেলে ট্রফি যাবে বনানীর আর্মি স্টেডিয়ামে। সেখানে ট্রফি প্রদর্শিত হবে এবং একটি কনসার্টও অনুষ্ঠিত হবে। সাধারণ মানুষ সেখান থেকে ট্রফিটি দেখতে পারবেন।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!